1. neayzmorshed2020@gmail.com : samikkhon :
November 30, 2022, 11:50 pm

চেয়ারম্যানকে কিল-ঘুষি: একযোগে পদত্যাগের ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশের সময় : Sunday, July 24, 2022
  • 108 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কুমিল্লা-৪ আসনের সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল কর্তৃক দেবীদ্বার উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদকে কিল-ঘুষি মারার ঘটনার দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছে বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশন।

এ ঘটনায় যথাযথ ব্যবস্থা ও সমাধান না হলে ব্যক্তিত্ব, আত্মমর্যাদা, সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার জন্য একযোগে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

আজ রোববার (২৪ জুলাই ) দুপুরে রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের পক্ষ থেকে এ দাবি জানানো হয়।

বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন-অর-রশীদ হাওলাদার বলেন, গত ১৬ জুলাই জাতীয় সংসদের মেম্বার্স ক্লাবে একজন সংসদ সদস্য (রাজী মোহাম্মদ ফখরুল) কর্তৃক যেভাবে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে (আবুল কালাম আজাদ) শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে, তা শুধু ঘৃণিতই নয়, নজিরবিহীন কলঙ্কও বটে। কলুষিত করেছেন জাতীয় সংসদ ভবন এলাকাকে। আমরা বিশ্বাস করি, এই হীন ঘটনা বিব্রত করেছে সরকারকেও। সরকারের উন্নয়নের অর্জনকে বিনষ্ট করতে এ ঘটনা ভূমিকা রাখছে। এই ন্যক্কারজনক ঘটনা আহত করেছে দেশের ৪৯২টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিসহ সকল জনপ্রতিনিধিদের।

 

তিনি আরও বলেন, প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করে কৃত্রিম ভিডিওর মাধ্যমে নানা অপ-প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রকৃত ভিডিওটি জাতীয় সংসদের সার্ভারে সুরক্ষিত রয়েছে। ঐতিহ্যবাহী সংগঠন আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে নিশ্চয়ই ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। যেহেতু উভয়ই আওয়ামী লীগ মনোনীত নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, এ বিষয়ে ঘটনার শিকার মো.আবুল কালাম আজাদ ইতিমধ্যেই আওয়ামী লীগের সভানেত্রী বরাবর সুষ্ঠু বিচার চেয়ে আবেদন করেছেন।

 

জাতীয় শোকের মাস আগস্ট আসার পূর্বেই দোষী ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির নিশ্চিতকরণ সময়ের দাবি উল্লেখ করে হারুন আল রশীদ বলেন, যদি এ সময়ের মধ্যে ঘটনার সন্তোষজনক সমাপ্তি না ঘটে তাহলে বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক জাতীয় শোকের মাস পরই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি ঘোষণা করছি। ২ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদে স্পিকার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান। সংসদ সদস্যের ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরণের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী বরাবর বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদের আনুষ্ঠানিক আবেদন। ১০ সেপ্টেম্বর দেশের সকল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের ঢাকায় সমাবেশ।

 

তিনি আরও বলেন, এরপরেও যদি যথাযথ ব্যবস্থা করা না হয়, কোনো উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের সাংবিধানিক নির্দেশনা ও ব্যতিরেকে কোনো মর্যাদাহানি, অধিকার অবমূল্যায়ন করা হয় তাহলে ব্যক্তিত্ব, আত্মমর্যাদা, সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্ব-স্ব এলাকার জনগণকে অবহিত করে আমরা একযোগে পদত্যাগ করতে বাধ্য হব।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম খান বীরু, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল আজিজ, ইয়াসিন মিয়া, রেজাউল হক জানু, আবুল কালাম আজাদ, অ্যাডভোকেট রিনা পারভীন প্রমুখ।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021 samikkhon.com
samikkhon :
x