1. neayzmorshed2020@gmail.com : samikkhon :
August 14, 2022, 7:10 am

আক্কেলপুরে মাথার চুল দাড়ি কেটে দির্যাতনের ঘটনায় গ্রেপ্তার-১

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশের সময় : Friday, July 15, 2022
  • 1220 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ওরোশ মাহফিলে নেশা খেতে বাধাঁ দেওয়ার অপরাধে ইউসুফ হোসেন (২৮) নামে এক যুবককে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মাথার চুল ও মুখের দাড়ি কেটে দেওয়ার ঘটনায় শাহিন ওরোফে ভুট্টু (২০) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে ওই মামলার অজ্ঞাতনামা আসামী ছিলেন।

 

। তাঁকে রুকিন্দীপুর মালেক পাড়া গ্রামে নিজ বাড়ির সামনে থেকে গত মঙ্গলবার বিকেলে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মামলার তদন্তে ওই ঘটনায় সে জরিত থাকার প্রমাণ পাওয়ায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশের দাবি।
এদিকে আহত ইউসুফ হোসেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাঁর বাড়ি নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার গন্ধর্বপুর উত্তরপাড়া গ্রামে।

গত সোমবার (১১ জুলাই) দুপুরে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের পুরাতন হাসপাতাল ভবনে ওই ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে ইউসুফের বাবা আব্দুল বারী বাদি হয়ে আক্কেলপুর থানায় রুকিন্দীপুর গ্রামের অন্তর হোসেন (২৫) ও রাকিব (২৫) দুই জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার বিকেলে থানায় মামলা দায়ের করেন।
স্থানীয় ও মামলার এজার স‚ত্রে জানা গেছে, ঈদের দ্বিতীয় দিন ইউসুফের বাড়িতে আত্বীয়স্বজনেরা বেড়াতে আসার কথা ছিল।

 

একারনে ইউসুফ তাঁর ভাগিনা বেলালকে সাথে নিয়ে রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের জামালগঞ্জ বাজারে বাজার করতে আসতেছিল। পথে রুকিন্দীপুরের পুরাতন হাসপাতালের কাছে অন্তর ও রাকিব পথ রোধ করে লোহার পাইপ দিয়ে ইউসুফকে মারধর করতে থাকে। ওই সময় বেলাল পালিয়ে যায়। এরপর তাঁকে ওই হাসপাতালের ভেতরে নিয়ে আর এক দফা মারধর করা হয়।

 

 

তখন অন্তর ও রাকিবের সাথে ১০-১২ জন উপস্থিত ছিল। এক পর্যায়ে ইউসুফকে জামালগঞ্জ রেলওয়ে ষ্টেশনের উপরে নিয়ে গিয়ে নাপিত ডেকে ইউসুফের মাথার চুল ও মুখের দাড়ি কেটে ফেলা হয়। সেখান থেকে আবার জামালগঞ্জ বাজারের ইউপি সদস্য শাহাদৎ হোসেনের অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ইউসুফকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

ইউসুফ এলাকায় পীর হিসেবে পরিচয় দিতেন। সেই সুবাদে তিনি তাঁর বাড়িতে আস্তানা গড়ে তোলেন। সেখানে তার মুরিদরা যাতায়াত করেন। গত তিন মাস আগে ইউসুফের বাড়িতে ওরোশ মাহ্ফিল হয়েছিল। সেই ওরোশ মাহফিলে অন্তর ও রাকিব নেশা করার জন্য গাঁজ সেবন করতে চেয়েছিল। ইউসুফ তাঁদের নেশা করতে বাঁধা দিয়েছিলেন। সেই থেকে ইউসুফের সাথে বিরোধ চলে আসছিল অন্তর রাকিবের।

ইউসুফের বড় ভাই জুয়েল হোসেন বলেন, আমার ছোটভাই পীর, আমাদের বাড়িতে আস্তানা রয়েছে, সেখানে ওরোশ মাহফিল হয়। সেই ওরোশে অন্তর রাকিব নেশা করতে চেয়েছিল। আমরা তাতে বাঁধা দিয়েছিলাম। সেই জেরে তাঁরা আমার ভাইকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মাথার সমস্থ চুল ও মুখের দাড়ি কেটে ফেলেছে। এঘটনায় আমার বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।

রুকিন্দীপুর ইউনিয়ন পরিষদের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহাদৎ হোসেন বলেন, ইউসুফ হোসেনকে আহত অবস্থায় জামালগঞ্জ বাজারে আমার অফিসে নিয়ে আসা হয়েছিল। তাঁর চুল ও দাড়ি কে কেটেছিল তা আমি জানিনা। তবে অন্তর ও রাবিকের একটি ১৫-২০ জনের একটি গ্রুপ রয়েছে। তাঁরা ইউসুফকে মেরেছে কিনা সেটিও আমি জানিনা।

 

 

 

আহত ইউসুফ হোসেন বলেন, আমি দীর্ঘদিন জঙ্গলে সাধনা করে পীর হয়েছি। এরপর বাড়িতে আস্তানা করেছি। আমার প্রায় ৪০০ জনের মতো ভক্ত রয়েছে। বাড়িতে ওরোশ হলে অন্তর রাকিবেরা নেশা করতে চায়। আমি তা হতে দেয় না। তাই থেকে তাঁরা বিভিন্ন সময় হুমকি দিয়ে আসতেছিল, এবং আমার আস্তানা ভেঙে ফেলতে চেয়েছিল। সেই জেরে তাঁরা আমাকে হত্যার উদ্দ্যেশে লোহার পাইপ দিয়ে মারধর করে, মাথার চুলি ও মুখের দাড়ি সব কেটে ফেলেছে। তাঁরা দুপুর থেকে টানা বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত নির্যাতন করে মেরেছে। আমি আমার উপর হামলা ও অঙ্গহানীর বিচার চেয়ে থানায় আমার বাবা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ অজ্ঞাত একজনকে গ্রেপ্তার করলেও মুল আসামীদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মালেক বলেন,ঘটনার পর ভুক্তভোগীর পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তদন্তে ঘটনার সাথে জরিত থাকার প্রমাণ পাওয়ায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ সকালে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021 samikkhon.com
samikkhon :
x