1. neayzmorshed2020@gmail.com : samikkhon :
December 10, 2022, 2:58 am

নওগাঁয় চাঁদার টাকা না পেয়ে সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে ছুরিকাঘাত

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশের সময় : Tuesday, July 12, 2022
  • 134 বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নওগাঁ সদর উপজেলার তিলেকপুর ইউনিয়নে চাঁদার টাকা না পেয়ে সাবেক সেনা কর্মকর্তাকে ছুরি আঘাত করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ওই এলাকার অন্তাহার গ্রামের  তুষার হোসেন (২৫) ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,তুশার হসেন  গত (০৯ জুলাই) বিকাল তিনটার সময় তিলেক পুর ইউনিয়নের মির্জাপুর নুরপাড়া গ্রামের সাবেক সেনা কর্মকর্তা মো. আব্দুল বারিক (৩২) বাসায় অনুপ্রবেশ করে ঈদে আনন্দ করবে বলে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। তখন সাবেক সেনা কর্মকর্তা চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট শুরু করে, একপর্যায়ে হত্যার উদ্দেশ্যে চাকু পেটে আঘাত করলে পেট কেটে গিয়ে ভুড়ি বের হয়ে যায়। এলাকাবাসীরা দলবদ্ধ হয়ে এগিয়ে গেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় তুষার হোসেন ও ছাতিয়ানগ্রামের মৃত দছির উদ্দিনের ছেলে মো. আশরাফুল ইসলাম (৫৫) আটক করে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

সাবেক সেনা কর্মকর্তা আবদুল বারিকের ভাই আব্দুর রউফ রাজা বলেন ,আমাদের বাসায় তুষার হোসেন তার সহযোগী  রফিকুল ইসলাম গুটো (২৬) আল-আমিন (২৩) মো.রাব্বী (২২) ছাতিয়ান গ্রামের  মো.রায়হান (২৪), মো.রিপন(২৮) আন্তাহার গ্রামের  মিজান হোসেন (২৫)  মুন্না(২৫) ও ছাতিয়ানগ্রামের   আশরাফুল ইসলাম (৫৫) আরো অজ্ঞাত  ৫-৬ জন অবৈধভাবে বাসায় অনুপ্রবেশ করে আমার ভাইকে মারপিট ও হত্যার উদ্দেশ্যে চাকু দিয়ে পেটে আঘাত করলে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে বড় ভাই মো আবু শোয়েব বাদশা এগিয়ে আসলে আমার বড় ভাইকেও এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করে একপর্যায়ে বড় ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করলে মাথার মাঝখানে লেগে ফেটে গিয়ে গুরুতর জখম হয়।

 

ছোট ভাই আবু জাফর গিফারী এগিয়ে ও শাহাজান হোসেন আসলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করে সে গুরুতর জখম হয়। একপর্যায়ে তাদের চিল্লাপাল্লায় গ্রামের লোকজন এসে এসে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেওয়ার জন্য রওনা হলে তিলেক পুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের পিন্টু কাজীর বাড়ির সামনে পৌঁছালে আবারো দেশীয় অস্ত্র সজ্জিত হইয়া হাসপাতালে নেওয়ায় পথে বাধা প্রদান করে। এমন অবস্থায় ওই গ্রামবাসী এগিয়ে এসে পুলিশের ইমার্জেন্সি কল নাম্বার ৯৯৯ ফোন দিয়ে পুলিশ এসে আমাদেরকে উদ্ধার এবং গ্রামবাসীর হাতে আটক দুজনকে থানায় নিয়ে যায়।

 

নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, সাবেক সেনা কর্মকর্তা কে হত্যার উদ্দেশ্যে পেটে চাকু আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসীরা দুজনকে বেঁধে রেখে থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে দু’জনকে আটক করে নিয়ে আসে। এ বিষয়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত আরও যারা আছে তাদেরকে আটক করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021 samikkhon.com
samikkhon :
x